ইসমাইল হোসাইন রায়হান, স্পেন: স্পেনের বাংলাদেশ দূতাবাস মাদ্রিদে অবস্থিত হলেও বার্সেলোনায় বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুবিধার কথা ভেবে রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকারের নেতৃত্বে একটি টিম গতবছর থেকে প্রতি দু’মাস অন্তর বার্সেলোনায় দূতাবাসের সেবা নিয়ে হাজির হন। এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশিরা প্রয়োজনীয় কাজগুলো করে নেন। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ২৫ ও ২৬ মে দূতাবাস টিম বার্সেলোনায় সেবা প্রদান করবে।

প্রথম দিন কাইয়্যা উর্খিল ১৪৫, বার্সেলোনায় সকাল নয়টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত সেবা প্রদান করা হবে। দ্বিতীয় দিন বিকাল চারটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটা পর্যন্ত সেবা প্রদান করা হবে। প্রথম দিনে সিরিয়াল গ্রহণকারীদের মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের এনরোলমেন্ট, ছয় বছরের কম বয়েসি শিশুদের পাসপোর্ট আবেদন গ্রহণ, যাদের ডিজিটাল পাসপোর্টের মেয়াদ কমপক্ষে এক মাস আছে তাঁদের পাসপোর্ট নবায়নের আবেদন জমা, ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্য পদের আবেদন গ্রহণ করা হবে।

দ্বিতীয় দিনেও এই কাজগুলোর পাশাপাশি পাসপোর্ট বিতরণ, ট্রাভেল পারমিট প্রদান এবং কাগজপত্র সত্যায়ন করা হবে। উল্লেখ্য, বার্সেলোনায় উল্লেখযোগ্যসংখ্যক বাংলাদেশি বাস করেন। রাজধানী মাদ্রিদ থেকে বার্সেলোনার দূরত্ব ৬০০ কিলোমিটারেরও বেশি। বার্সেলোনা থেকে মাদ্রিদে গিয়ে দূতাবাসের প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করতে যেমন সময় লাগে, তেমনি ন্যূনপক্ষে ২০০ ইউরো খরচের ঝক্কি পোহাতে হয় প্রবাসী বাংলাদেশিদের। প্রবাস জীবনের কর্মব্যস্ততার ফাঁকে যা অনেকের জন্য কষ্টসাধ্য হয়ে পড়ে।

মূলতঃ এই বিবেচনা থেকেই রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার দূতাবাসের সেবা নিয়ে বার্সেলোনায় হাজির হন এবং প্রবাসী বাংলাদেশিদের সেবা দিয়ে থাকেন।