জর্জিয়া প্রতিনিধি: যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের রাজধানী আটলান্টায় অনুষ্ঠেয় ফোবানা সম্মেলনের ১৩৯ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করেছে আয়োজক সংগঠন ‘বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়া’। ১২ জুন মেট্রো আটলান্টার লিলবার্ন শহরের ফোবানা কার্যালয়ে এ ঘোষণা দেন আয়োজক কমিটির সভাপতি ডিউক খান।

তিনি বলেন, “সাধ্যমত যার যার কাজের পারদর্শিতা ও মেধার দিক বিবেচনা করে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এরপরও কোন গুণী সংগঠক আগ্রহী হয়ে এগিয়ে এলে তাঁকে সাদরে কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়া হবে।”

সম্মেলনের আহ্বায়ক জসিম উদ্দিনের সভাপতিত্বে ওই প্রস্তুতি সভায় ৩২তম সম্মেলন আয়োজনের বিভিন্ন বিভাগের কার্যক্রমের অগ্রগতি তুলে ধরেন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা। আহ্বায়ক জসিম উদ্দিন সামগ্রিক অগ্রগতি উপস্থাপন করার পর একে একে সদস্য সচিব নাহিদুল খান সাহেল হোটেলের আসন বরাদ্দের অগ্রগ্রতিসহ অগ্রিম টিকেট বিক্রির পরিকল্পনা ও পদ্ধতি ব্যাখ্যা করেন এবং সবাইকে অগ্রিম টিকেটের তিনদিনের সুলভ মূল্যের প্যাকেজ কেনার আহ্বান জানান।

পূর্ণাঙ্গ কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রথম সারির কর্মকর্তারা হলেন আহ্বায়ক জসিম উদ্দিন, সদস্য সচিব নাহিদুল খান সাহেল, আয়োজক কমিটির সভাপতি ডিউক খান, নির্বাহী পরিচালক মুহাম্মদ আলী মানিক, প্রধান সমন্বয়ক এম মওলা দিলু, প্রধান কনসালটেন্ট গিয়াসউদ্দিন ভূঁইয়া, প্রধান উপদেষ্টা মোহাম্মদ জামান ঝন্টু, প্রধান অর্থ পরিচালক রফিক হক, যুগ্মভাবে দুই প্রধান সেমিনার সমন্বয়ক শাহাব সিদ্দিকী ও সালেহ উদ্দিন বাদল, প্রধান কারিগরি-স্থাপত্য ও ডিজাইন পরিচালক সালেহ উদ্দিন বাদল ও প্রধান পেট্রন জামিল ইমরান।

সম্মেলনের অন্যান্য শীর্ষ কর্মকর্তারা হলেন দুই যুগ্ম সদস্য সচিব আরিফ আহমেদ ও ওয়াসি উদ্দিন, পারফর্মিং আর্ট পরিচালক গোলাম মহিউদ্দিন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালক গাইডেন হকিন্স, সংগীত পরিচালক রোমেল হোসেন খান, ১৫ জন উপদেষ্টা- ইউসুফ আলী, শামসুল আলম, মুস্তাফিজুর রহমান মিলু, আবুল আজাদ কয়েস, আজহারুল ইসলাম ফারুক, রফিক হাসান, নজরুল ইসলাম, আগা জামিল, আবু তালুকদার, গোলাম মহিউদ্দিন, হালিম ইউসুফ, আজিজুল হক, সৈয়দ ওয়াসিম, রবিউল আলম প্রিন্স ও হান্নান চৌধুরী, ৭ জন যুগ্ম আহ্বায়ক- শাকুর মিন্টু, শাকিরা আলী বাচ্চি, সলিম উল্লাহ্‌ সলি, মাহবুব ভূঁইয়া, সৈয়দ আহমেদ চুন্নু, জাহাঙ্গীর হোসেন ও মামুন শরীফ।

সম্মেলনের অন্যান্য মূল চালিকাশক্তির কর্মকর্তারা হলেন- ৮ জন সমন্বয়ক হলেন: ফারুক আহমেদ, অসীম সাহা, মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী লোদী, এ এইচ রাসেল, শাহ্‌নেওয়াজ হোসেন, শহিদুল ইসলাম ঠান্ডু ও জয়নাল ভূঁইয়া, ৩ জন সেমিনার সমন্বয়ক: নিয়াজ খান, গোলাম মহিউদ্দিন ও মোসাদ্দেক খান সাদেক, ১৩ জন পেট্রন: নাঈম বাশার, আওলাদ হোসেন, হাসান তারেক দ্বীপ, সাদেক হুসেন, শফিক হাই, মোহাম্মদ হোসেন শামীম, এবিএম করিম রিপন, অয়ন সাঈদ, নাঈম রহমান, কাজী মোহাম্মদ নাহিদ, সদরুল আমীন, মোস্তফা কামাল মাহমুদ ও পিন্টু মাহমুদ, অনুষ্ঠান উপস্থাপনা চেয়ারপার্সন রিটা আলী, অনুষ্ঠান উপস্থাপনা সিনিয়র কো চেয়ারম্যান রুমী কবির, ৬ জন উপস্থাপনা কো চেয়ারপার্সন: সালেহ মুনমুন, জাকিয়া তওফিক, সাবিনা চৌধুরী, পপি রহমান, রাই নন্দী ও ইমা ইমা তানজিম, রেজিস্ট্রেশন চেয়ারম্যান মহিন উদ্দিন দুলাল, ৩ জন কো চেয়ার: কাজী এস হক, টিনা আজাদ ও খন্দকার ফাতিমা আকতার রুমী, আপ্যায়ন ও আতিথিয়তা চেয়ারম্যান আরিফ আহমেদ, কো চেয়ার এ এস এম আবেদীন সাদমান, তহবিল সংগ্রহ চেয়ারম্যান আজিজুল হাকিম, কো চেয়ার গাইডেন হকিন্স, কমিটিসসমূহের সমন্বয় চেয়ারম্যান মাহরুফুর রহমান ভূঁইয়া, মহিলা বিষয়ক চেয়ারপার্সন ইলা চন্দ, কো চেয়ার সুলতানা সুমী ও নিতি আকসুমা, যানবাহন চেয়ারম্যান মোহাম্মদ চৌধুরী সরফু, কো চেয়ার রায়হান আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রহমান রুবন, কো চেয়ার আরিফুর রহমান ও মাজহারুল ইসলাম, নিরাপত্তা বিষয়ক চেয়ারম্যান ফজলে চৌধুরী আয়াজ, কো চেয়ার মোহাম্মদ তুহিন খান, যুব ফোরাম চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক খান সাকিব ও কো চেয়ার রাজিব আজাদ।