আনজার শোয়াইব: ৬২২ খ্রিস্টাব্দে মহানবী (স.) মক্কা থেকে মদিনায় হিজরত করার পর বুঝতে পারছিলেন, একটু বৈচিত্র্য, একটু নির্মল আনন্দ মুসলমানদের জন্য খুব দরকার। আরবের প্রচলিত আনন্দ-উৎসবগুলো রুচির মানদ-ে মুসলমানদের জন্য প্রযোজ্য হবে না বলেই বিকল্প আনন্দ-উৎসবের প্রয়োজন অনুভব করেছিলেন তিনি।

৬২৪ খ্রিস্টাব্দে মক্কার অবিশ্বাসীদের সংগে মদিনার মুসলমানদের এক তীব্র যুদ্ধ সংঘটিত হয়, যার নাম বদর যুদ্ধ। মাত্র ৩১৩ জন সৈন্য নিয়ে মুসলমানরা এক হাজার সৈন্যের শত্রু বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে বিজয়ী হন, যা ছিলো রসুল (সঃ) ও তাঁর সাহাবীদের জন্য এক মহা-আনন্দের উপলক্ষ।

এছাড়া, রসুল (সঃ) তাঁর মেয়ে ফাতিমার (রাঃ) বিয়ে দেন হযরত আলীর (রাঃ) সংগে। এটিও এক পরম আনন্দের ঘটনা। এদিকে রমজান মাসের শেষ দিন। এই দু’টি আনন্দের ঘটনা এবং মুসলমানদের নির্মল আনন্দ-বিনোদনের কথা বিবেচনা করে মহানবী (সঃ) ঘোষণা করলেন, আগামীকাল ঈদ- ঈদুল ফিতর। এভাবেই শুরু ঈদুল ফিতর বা রোজা ছাড়ার উৎসবের।