ভয়েস বাংলা ডেস্ক: আত্মহত্যার প্রতিবেদন প্রকাশে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার গাইড লাইন বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠান মানছে না বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের চিকিৎসকরা। তারা বলেছেন, আত্মহত্যার প্রতিবেদন এমন হওয়া উচিত যেনো সেই প্রতিবেদন পড়ে অন্য কেউ আত্মহত্যায় অনুপ্রাণিত না হয়, কিংবা আত্মহত্যার নতুন কোনো পরিকল্পনার পথ খুঁজে না পায়।

বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের মাল্টিপারপাস হলে আয়োজিত ‘আত্মহত্যার সংবাদঃ কেমন হওয়া উচিত’ শীষর্ক কর্মশালায় সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা এসব কথা বলেন। জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা যৌথভাবে এই কর্মশালার আয়োজন করে।

কর্মশালায় আত্মহত্যার ঝুঁকি ও প্রতিরোধ বিষয়ে আলোচনা করেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের (এনআইএমএইচ) অধ্যাপক ডা. মোহিত কামাল। ‘আত্মহত্যার সংবাদঃ কেমন হওয়া উচিত’ বিষয়ে আলোচনা করেন ‘এনআইএমএইচ’র সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ, ‘আত্মহত্যার প্রতিবেদন’ বিষয়ক আলোচনা করেন বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা বাংলাদেশের মানসিক স্বাস্থ্যের জাতীয় কনসালট্যান্ট ড. হাসিনা মমতাজ, ‘বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে আত্মহত্যা’ বিষয়ক আলোচনা করেন সহযোগী অধ্যাপক ডা. মেখলা সরকার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রফেসর ডা. মো. ফারুক আলম।

# ভয়েস বাংলা/ এটি