নিজস্ব প্রতিবেদক: একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য ১শ’ ৭৩টি কলেজে কেউ আবেদন করেনি। এছাড়া ৮শ’ ৬৬টি কলেজ পছন্দ থাকলেও এসব কলেজে একজনও মনোনীত হয়নি। ঢাকা শিক্ষা বোর্ড সূত্রে এমন তথ্য জানা গেছে।

গত ১১ জুন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড দেশের সকল সরকারি-বেসরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ভর্তির ফলাফল প্রকাশ করে। ফলাফলে দেখা গেছে, দেশের ১৬ হাজার ৪০৬টি কলেজের আবেদন করে মোট ১২ লাখ ৩৮ হাজার ২৫২ জন ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। ১৩ লাখ ১৯ হাজার ৬৭৫ জন একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে আবেদন করে। ৯৪ শতাংশ শিক্ষার্থী তাঁদের পছন্দ অনুযায়ী নির্বাচিত কলেজে ভর্তি সুযোগ পেয়েছে। প্রায় ৬২ হাজার শিক্ষার্থী কোনো কলেজে ভর্তির সুযোগ পায়নি। তারমধ্যে প্রায় ২০ হাজার জিপিএ-৫ ধারী রয়েছে।

ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী, তাঁরা দ্বিতীয় ধাপে পুনরায় আবেদন করতে পারবে। দ্বিতীয় দফায় সুযোগ না পেলে তৃতীয় ধাপে আবেদন করা যাবে। এসএসসি পরীক্ষায় পাসধারীর চেয়ে দেশে কলেজগুলোতে অতিরিক্ত আসন রয়েছে। ঢাকা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, দেশে ১৬ হাজার ৪০৬টি কলেজে অনলাইনে ভর্তির আবেদন নেয়া হয়। এদের মধ্যে ১৭৩টি কলেজে কোনো শিক্ষার্থী আবেদন করেনি। ভর্তি নীতিমালা অনুযায়ী একজন শিক্ষার্থী সর্বনিম্ন পাঁচটি কলেজ পছন্দ দিতে পারেন। সে অনুযায়ী শিক্ষার্থীরা ৮৬৬টি কলেজ পছন্দের তালিকায় রাখলেও অন্য কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। মেধা অনুযায়ী বোর্ড থেকে কলেজ নির্ধারণ করে দেয়ায় ৮৬৬টি কলেজ শিক্ষার্থী শূন্য রয়েছে।

ভর্তির সুযোগ না পাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে কলেজ পরিদর্শক বলেন, ভালো ফলধারীদের সকলেই ভালো কলেজে ভর্তির দিকে নজর থাকে। এ কারণে সেসব কলেজে আবেদন বেশি পড়ে। কিন্তু সেখানে সীমিত আসন থাকায় জিপিএ-৫ ধারী হলেও সকলকে ভর্তি সুযোগ দেয়া সম্ভব হয় না। এ কারণে অনেকে প্রথম যারা একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য কোনো কলেজে মনোনীত হয়নি। তারা দ্বিতীয় ও তৃতীয় ধাপে শূন্য আসন থাকা কলেজগুলোতে নতুন করে আবেদন করতে পারবে।