রেজা মাহমুদ: ভারতে দুই বছর কারাভোগের পর সাত বাংলাদেশি কিশোরকে দেশে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ। গত ১০ মে রাতে বেনাপোল চেকপোস্ট দিয়ে ভারতের পেট্রাপোল পুলিশ তাদের বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, ফেরত আসা শিশু-কিশোররা হলো-যশোরের শার্শা উপজেলার রুদ্রপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের ছেলে বিপ্লব হোসেন (১৪), যশোর সদর উপজেলার নারাঙ্গালী গ্রামের বিলাল হোসেনের ছেলে মিজানুর (১১), খুলনার ফুলতলা উপজেলার পাইক গ্রামের টুটুল মোল্লার ছেলে ইমন মোল্লা (৪), ঢাকার আশুলিয়া উপজেলার নিরিবিলি গ্রামের মমিন মিয়ার ছেলে জহিরুল ইসলাম (১১), একই এলাকার মমিন হোসেনের ছেলে জয়নাল হোসেন (১৬), নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার ছালেনগর গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে হাসান দেওয়ান (১৪) ও একই এলাকার বাদলের ছেলে ফয়সাল হোসেন (১২)।

রাইটস যশোরের তথ্য ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা তৌফিকুর রহমান জানান, বিভিন্ন সময় পাচারকারীরা এসব শিশু-কিশোরকে ভালো কাজের প্রলোভন দেখিয়ে ভারতে নিয়ে যায় পাচারকারীরা। অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের সময় ভারতীয় বিএসএফ সদস্যরা তাদের আটক করে আদালতে পাঠান। আদালত তাদের দুই বছরের জেল দেন। পরে ভারতের উত্তর ২৪ পরগনার ‘কিশোলয়’ নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে।

দুই দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগের মাধ্যমে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন আইনে তাদের দেশে ফেরত আনা হয়। পরিবারের কাছে পৌঁছে দেয়ার জন্য সেখান থেকে ‘রাইটস যশোর’ নামে একটি এনজিও সংস্থা তাদের দেশে ফিরিয়ে আনেন।