ভয়েস বাংলা ডেস্ক: শান্তি ও অর্থনৈতিক সুযোগ সৃষ্টিতে সারা বিশ্ব থেকে উদীয়মান ১০ তরুণ নেতাকে পুরস্কৃত করতে চলেছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এই তালিকায় রয়েছেন বাংলাদেশের তানজিল ফেরদৌস। আগামী মাসের ২ তারিখ ওয়াশিংটনে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দপ্তরে আনুষ্ঠানিকভাবে তানজিলের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে বলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

২৪ বছর বয়সী তানজিল বাংলাদেশের কমিউনিটি পর্যায়ে উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করছেন। ব্যক্তিগতভাবেও তিনি তার দেশে জেন্ডার বৈষম্যকে চ্যালেঞ্জ করে চলেছেন। ২০১৫ সালে প্রতিষ্ঠিত চট্টগ্রামভিত্তিক “ভলানটিয়ার্স ফর বাংলাদেশ” নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সভাপতি তানজিল। বাংলাদেশের বৃহত্তম এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি এখন পর্যন্ত কয়েকশো তরুণকে যুক্ত করে সমাজ উন্নয়নমূলক বেশ কিছু উদ্যোগ বাস্তবায়ন করেছে।

তানজিলসহ ২০১৮ সালে আর যারা এই পুরস্কার পাচ্ছেন তারা হলেন, ইরাকের সারা আব্দুল্লাহ আব্দুলরহমান, ইন্দোনেশিয়ার দিওভিও আলফাত, তুরস্কের এস সিফতিসি, লিথুয়ানিয়ার জিনা সালিম হাসান হামু, পাকিস্তানের দানিয়া হাসান, নরওয়ের ন্যান্সি হার্জ, দক্ষিণ আফ্রিকার ইসাসিফিনকসি দিঙ্গি, পানামার রোজ রোড্রিগেজ ও তাজিকিস্তানের ফিরুজ ইয়োগবেকভ।

যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিনিময় সংক্রান্ত ব্যুরোর প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তানজিল মনে করেন কমিউনিটি পর্যায়ে কাজে তরুণদের যুক্ত ও উদ্বুদ্ধ করার মাধ্যমে তাদের চরমপন্থি কর্মকাণ্ড থেকে দূরে রাখা সম্ভব। বর্তমানে তিনি রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিয়ে কাজ করছেন। জাগো ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ভেতর ৫০০ শিশুর নিরাপদ আশ্রয় গড়ে তুলতে তিনি সাহায্য করেছেন। কিশোরী ও নারীদের আগামীদের নেতৃত্বে আনাতে তাদের সক্ষমতা তৈরিতে কাজ করছেন তানজিল।