27 C
Dhaka
১১ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার , ২০১৮ ০৪:৫০:৪০ অপরাহ্ণ
ভয়েস বাংলা
বিজনেস ভয়েস সাম্প্রতিক

রাজনীতির উপরে অর্থনীতিকে স্থান দিতে হবে : ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন

ভয়েস বাংলা প্রতিবেদক: শেষ হয়েছে বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান (বিআইডিএস) আয়োজিত দুই দিনব্যাপী বিআইডিএস রিসার্চ অ্যালমানাক-২০১৮। সম্মেলনের সমাপনী দিনের শেষ অধিবেশনের আলোচনায় বক্তারা বলেন, আসন্ন নির্বাচনের মাধ্যমে যে নতুন সরকার আসছে, তাদের জন্য বেসরকারি বিনিয়োগ বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, রাজস্ব আয় বাড়ানো, ব্যাংকিং খাতের দুর্নীতি ও অনিয়ম বন্ধসহ বেশকিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে। যে কারণে দেশের অর্থনীতিকে রাজনীতির ঊর্ধ্বে অবস্থান দেয়ার আহ্বান জানান তারা।

রাজধানীর লেকশোর হোটেলে অনুষ্ঠিত ‘দ্য ডেভেলপমেন্ট আউটলুক-কি মেসেজ ফর দ্য নেক্সট গভর্নমেন্ট’ শীর্ষক ওই অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন। প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ড. ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (জ্যেষ্ঠ সচিব) ড. শামসুল আলম, পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) চেয়ারম্যান ড. জায়েদি সাত্তার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এমএ তসলিম, ঢাকায় নিযুক্ত বিশ্বব্যাংকের লিড ইকোনমিস্ট ড. জাহিদ হোসেন, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের (বিআইজিএম) পরিচালক ড. মোহাম্মদ তারেক, প্রফেসর ড. স্বপন আদনান প্রমুখ।

ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন বলেন, রাজনীতির উপরে অর্থনীতিকে স্থান দিতে হবে। বাংলাদেশে অর্থনীতি ও রাজনীতি দুটি পরাশক্তি হিসেবে কাজ করে। তবে সবসময় রাজনীতিই অর্থনীতিকে নিয়ন্ত্রণ করে। এক্ষেত্রে রাজনৈতিক সরকারকে অর্থনীতিকে গুরুত্ব দিতে হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের বাণিজ্যযুদ্ধ থেকে বাংলাদেশ লাভবান হতে পারে। সেজন্য দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি করতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ বলেন, রাজনৈতিক বাণিজ্য চক্র আছে। যেমন কয়েক সপ্তাহ ধরে তড়িঘড়ি করে অসংখ্য প্রকল্প পাস হচ্ছে। এগুলোর অর্থায়ন কোথা থেকে কীভাবে হবে, সেটি চিন্তা করা হয়নি। অনেকের নানা চাওয়া-পাওয়ার দিক দেখে এটি করা হয়েছে। পরবর্তী সরকার এসে প্রকল্পগুলোর অর্থায়ন নিয়ে চিন্তা করবে। তাছাড়া নির্বাচনী ব্যয় বৃদ্ধি পাওয়ায় মূল্যস্ফীতি বাড়বে। সরকার একদিকে রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতা দেয়, দুর্নীতি ও অন্যায়কে সুযোগ-সুবিধা দেয়, একই সঙ্গে কল্যাণমুখী ধারণাও বহন করে। দুটি একসঙ্গে হওয়াটা প্যারাডক্স।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. শামসুল আলম বলেন, আগামী মার্চ থেকে অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা তৈরির কাজ শুরু করা হবে। একই সঙ্গে ২০২২-২০৪১ সাল পর্যন্ত দ্বিতীয় প্রেক্ষিত পরিকল্পনা তৈরির কাজও শুরু হবে। বাংলাদেশ যাতে মধ্য আয়ের ফাঁদে না পড়ে, সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকে উদ্যোগ রয়েছে। আগামী দিন হবে মেগা প্রকল্পের দিন। বাংলাদেশের উন্নয়নে কোনো জাদু নেই, আছে পরিকল্পনা, গবেষণা ও সৃজনশীলতা।

#ভয়েস বাংলা/আকাআ

সম্পর্কিত

গাজায় ইসরাইলি হামলায় আরো তিন ফিলিস্তিনি নিহত

ডেস্ক রিপোর্ট

বীমার নিবন্ধন নবায়ন ফি কমেছে

ডেস্ক রিপোর্ট

মেঘনা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ফ্রেশ ব্র্যান্ড দুবাইয়ে পুরস্কৃত

ডেস্ক রিপোর্ট

ব্রিস্টলে বাংলাদেশ কনস্যুলেটে পাসপোর্ট সেবা শুরু রোববার

ডেস্ক রিপোর্ট

বিশ্ব বাজারে বেড়েই চলেছে জ্বালানি তেলের দাম

ডেস্ক রিপোর্ট

পাট ও পাটপণ্য রফতানিতে আয় বেড়েছে ৬ দশমিক ৫৬ শতাংশ

ডেস্ক রিপোর্ট

মতামত