27 C
Dhaka
১১ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার , ২০১৮ ০৪:২০:৪২ অপরাহ্ণ
ভয়েস বাংলা
শিক্ষা সাম্প্রতিক

এসএসসির ফরম পূরণে অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগ

ভয়েস বাংলা প্রতিবেদক: সম্প্রতি মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণে যেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো অতিরিক্ত ফি আদায় করতে না পারে, সে জন্য নির্দেশনা দেয় । কিন্তু বোর্ডের নির্দেশ না মেনে বিদ্যালয়গুলো ফি’র নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেই যাচ্ছে। এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে এর সত্যতাও খুঁজে পেয়েছে।

জানা গেছে, কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বোর্ডের নির্ধারিত ফি ছাড়াও বাধ্যতামূলকভাবে কোচিং, মডেল টেস্ট, র‌্যাগ ডে, শিক্ষক কল্যাণ, এমনকি বিবিধ খরচের নামে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করছে। এ বিষয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর জিয়াউক হক বলেন, ‘বোর্ডের নির্ধারিত ফি ছাড়া শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোনো চার্জ নেওয়া যাবে না। যারা এসব করছে, তাদের বিরুদ্ধে বিধি মোতবাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বোর্ডের একটি মনিটরিং দল এ নিয়ে কাজও করছে।’

সম্প্রতি রাজধানীর যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ফরম পূরণের ফির সঙ্গে কোচিং, মডেল টেস্ট, র্যাগ ডে ফি নামে প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ছয় হাজার করে টাকা নেয় কর্তৃপক্ষ। তবে দুদকের অভিযানের কারণে প্রতিষ্ঠানটি অতিরিক্ত টাকা ফেরত দেবে বলে নোটিশ টানিয়ে দেয়। দনিয়া একে স্কুল অ্যান্ড কলেজে নির্ধারিত ফি ছাড়া কোচিং, মডেল টেস্ট, শিক্ষক কল্যাণ তহবিল এবং বিবিধ খাতের নামে আদায় করা হয় ৩ হাজার ৮০০ টাকা করে। হাজারীবাগের সালেহা উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়েও নির্ধারিত ফির অতিরিক্ত টাকা নেওয়া হয়। দুদকের অভিযানে তা প্রতিরোধ করা হয়েছে।

বোর্ডের নির্দেশনা অনুযায়ী, বিজ্ঞান বিভাগ চতুর্থ বিষয়সহ ফরম পূরণের ফি ১ হাজার ৮০০ টাকা। এর মধ্যে বোর্ড ফি ১ হাজার ৩৮৫ টাকা, বাকিটা কেন্দ্র ফি। ব্যবসায় শিক্ষায় চতুর্থ বিভাগসহ ১ হাজার ৬৮০ টাকা। মানবিক বিভাগের চতুর্থ বিভাগসহ ফরম পূরণ ১ হাজার ৬৮০ টাকা। এ ছাড়া ২০১৬-১৭ এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণে শারীরিক শিক্ষা, স্বাস্থ্যবিজ্ঞান ও খেলাধুলা-১৪৭ এবং ক্যারিয়ার শিক্ষা-১৫৬ বিষয়ের পরীক্ষার ধারাবাহিক মূল্যায়নের মাধ্যমে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে সম্পন্ন হবে বিধায় এ দুটির বোর্ড ফি দিতে হবে না। তবে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের অনিয়মিত শিক্ষার্থীদের জন্য এ ফি লাগবে।

অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে দুদকের একটি দল রাজধানীর কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করে। অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় দুদক থেকে সতর্কও করে দেওয়া হয়। অনিয়ম প্রতিরোধে দুদকের হটলাইনে হটলাইনে (১০৬ নম্বর) ফোন করে যে কোনো ভুক্তভোগী অভিযোগ জানালে তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে বলে জানায় দুদক।

#ভয়েস বাংলা/আকাআ

সম্পর্কিত

ইরানের ওপর সবচেয়ে কঠোর নিষেধাজ্ঞা দিলো যুক্তরাষ্ট্র

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রধানমন্ত্রীর দোয়া নিলেন মাশরাফি

ডেস্ক রিপোর্ট

ইভিএমের ভাগ্য নির্ধারণ আগামীকাল

ডেস্ক রিপোর্ট

জাতীয় ঈদগাহে আইয়ুব বাচ্চুর জানাজা অনুষ্ঠিত

ডেস্ক রিপোর্ট

চট্টগ্রাম ও মংলা বন্দর ব্যবহারে বাংলাদেশ-ভারত চুক্তি সই

ডেস্ক রিপোর্ট

বিশ্ববাজারে বাংলাদেশি পোশাকের রফতানি বেড়েছে

ডেস্ক রিপোর্ট

মতামত