21.2 C
Dhaka
২১ নভেম্বর, বুধবার , ২০১৮ ০৯:৩১:৪০ অপরাহ্ণ
ভয়েস বাংলা
শিল্প-সাহিত্য

ভয়েস বাংলা’র জমজমাট আয়োজন

মানুষের হৃদয় ভূমিতে প্রেমের আধিপত্য একটু বেশিই। এর স্বরূপও বহুমাত্রিক। জীবনে একবারও প্রেমে পড়েননি কিংবা কাউকে ভালোবাসেননি এমন মানুষ নাকি পৃথিবীতে একজনও নেই। স্বর্গের পবিত্র রং ছুঁয়ে, বর্ণিল প্রজাপতির মতো প্রেম আসবেই। কখনো নিরবে, কখনো সরবে। প্রেম আছে বলেই এতো হানাহানি, যুদ্ধ-বিগ্রহ, দুঃখ-কষ্টের মাঝেও পৃথিবী টিকে আছে। প্রেম আছে বলেই আজো ফুল ফোটে, পাখি গান গায়, নিশীথে চাঁদ ওঠে, কবিরা লেখেন অনিন্দ্য সুন্দর সব কবিতা। মূলতঃ হৃদয়ানুভূতির বাঙময় রূপই হলো প্রেম।

প্রেম চুম্বকের মতো আকর্ষক, সুরের মতো গহীন, কবিতার মতো উপভোগ্য, নীলিমার মতোই প্রশান্ত। সাধারণের কাছে প্রেম মায়া, ধ্যানীর বোধে আনন্দ-চেতনা, অনুসন্ধানীর কাছে সোনার হরিণ। সব মিলিয়ে প্রেম মানে রহস্যময় এক দুর্বার আবেগের উপাখ্যান।

প্রিয় প্রবাসী, প্রেমের যেমন জন্ম আছে, তেমনি আছে মৃত্যুও। প্রেম আসে-প্রেম যায়। হারায় অতলে, জ্ঞাতে-অজ্ঞাতে। কিন্তু প্রথম প্রেম-এর স্মৃতি মানুষ কখনো বিস্মৃত হয় না। প্রথম প্রেম আমৃত্যু জড়িয়ে থাকে অদৃশ্য শেকলে। আপনার প্রথম প্রেমের স্মৃতিকথা নিয়ে ভয়েস বাংলা’র বিশেষ আয়োজন “প্রথম প্রেম”।

প্রিয় প্রবাসী, আপনারা শুধু নারী-পুরুষের প্রচলিত প্রেমের স্মৃতিকথা লিখবেন, এমন নয়। প্রেমের বিস্তৃতির কোনো সীমা-পরিসীমা নেই। আমরা চাই, ভয়েস বাংলা’র এই বর্ণিল আয়োজনে মানুষের সব ধরনের প্রেম-ভালোবাসার সমাবেশ ঘটুক।

যেমন-সন্তানের সংগে পিতা-মাতার, পিতা-মাতার সংগে সন্তানের রয়েছে চিরন্তন প্রেমের বন্ধন। স্বামী-স্ত্রী’র সেতুবন্ধনও ওই প্রেমেরই। ভাইয়ে-বোনে, ভাইয়ে ভাইয়ে কিংবা বোনে-বোনেও থাকে প্রেমের মধুর সম্পর্ক। প্রেমের মাধ্যমেই জোটে প্রিয় বন্ধু। স্কুলপ্রেম, শিক্ষকপ্রেম, প্রেম হয় ভ্রমণের সংগেও। শৈশবে প্রিয় পোষ্য বিড়াল, কুকুর কিংবা ময়না-টিয়ার প্রেমে পড়েন অনেকে। কেউ পড়েন পৌষের বারোয়ারি মেলায় কেনা খেলনার প্রেমে, কেউবা রঙিন ঘুড়ির। বইপ্রেমী মানুষেরও অভাব নেই। কেউ কেউ কাজের প্রেমেও জড়িয়ে পড়েন। এছাড়া আছে গ্রামপ্রেম, সংগীতপ্রেম, গাড়িপ্রেম, বাড়িপ্রেম-কতো কী! সর্বোপরি মানুষ খোদা প্রেমেও বিভোর হন।

অতএব, মনের মাধুরী মিশিয়ে, সাবলীল ভাষায় লিখে ফেলুন প্রথম প্রেমের স্মৃতিকথা। নিজে লিখুন। বন্ধুকেও লিখতে বলুন।

ভয়েস বাংলা’র ‘প্রথম প্রেম’ আয়োজনে আজ ছাপা হলো রুমি’র প্রথম প্রেমের স্মৃতি ‘হৃদয়পুরের বাসিন্দা’। আপনারাও লিখুন স্মৃতির অতলে ডুবে যাওয়া প্রেমের কথা, প্রেমাস্পদের কথা। এতে কিছুটা হলেও হালকা হবে হৃদয়ভূমি।

ভালোবাসা কী?

ভালোবাসা কী? আমি জানি না। আমার ধারণা ছিলো, ভালোবাসা এক ধরনের খারাপ কাজ। ছোটবেলা থেকেই লক্ষ্য করেছি, কোনো মেয়ের সংগে কথা বলতে গেলে মা বারণ করতেন। মায়ের ধারণা ছিলো, কোনো মেয়ের সংগে কথা বললেই প্রেম হয়ে যাবে। তাই আমাকে চোখে চোখে রাখতেন। এভাবেই আমি বড় হয়েছি। কোনো মেয়ে আমার দিকে তাকালে আমি অন্যদিকে তাকিয়ে থাকতাম। এখন আমি কলেজে পড়ি। আমার জীবনে ঘটে যাওয়া একটি ঘটনার কথাই শোনাবো আপনাদের।

তখন রাত ৭টা। হঠাৎ আমার মোবাইলে একটি অচেনা নম্বর ভেসে ওঠে। আমি বাসায় ছিলাম না বলে মা কলটি রিসিভ করেন। অন্য প্রান্ত থেকে একটি মেয়ে বলে, ‘অজয়কে ডেকে দিন তো।’ মেয়ে কণ্ঠ শুনে মা তো তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন। প্রশ্ন করেন, ‘তুমি কে?’ মেয়েটি উত্তর না দিয়ে ফোন কেটে দেয়। আমি বাসায় ফিরতেই মা জিজ্ঞাসা করেন, ‘মেয়েটি কে রে?’ আমি তো ‘থ’। কারণ, আমি কোনো মেয়ের সংগে কথা বলি না। আমার ভাগ্নি জানালো, একটি মেয়ে আমাকে মোবাইল ফোনে চেয়েছিলো। আমি তো মহাচিন্তায় পড়লাম, কোনো মেয়েকে মোবাইল নম্বর দিইনি, তাহলে…। পরদিন সকালে সেই অচেনা নম্বরে ফোন করলাম। মেয়েটি ফোন ধরেই বলে, ‘আমি আপনাকে খুব ভালোবাসি।’

-আপনার নাম কী? আমার মোবাইল নম্বর পেলেন কীভাবে?

সে কিছুই বললো না। বললাম, ‘দ্যাখো, আমার মা কোনো মেয়ের সংগে কথা বলা পছন্দ করেন না। তাই তুমি কখনও ফোন করবে না। অবশ্য এরপর সে কোনোদিন ফোন করেনি।

অজয় কিশোর কুরী

সম্পর্কিত

দেশে দেশে ঈদ-পর্ব-০২

ডেস্ক রিপোর্ট

দেশে দেশে ঈদ-পর্ব-০৯ (সংযুক্ত আরব আমিরাত-প্রথম অংশ)

ডেস্ক রিপোর্ট

দেশে দেশে ঈদ-পর্ব-০৪

ডেস্ক রিপোর্ট

ভয়েস বাংলা’র জমজমাট আয়োজন

ডেস্ক রিপোর্ট

ভয়েস বাংলা’র জমজমাট আয়োজন

ডেস্ক রিপোর্ট

ভয়েস বাংলা’র জমজমাট আয়োজন

ডেস্ক রিপোর্ট

মতামত